মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশের কোনো কর্মীকে আটক করা হবে না: মন্ত্রী নূরুল ইসলাম

nnytyut

নিজস্ব প্রতিবেদক

ইউএস বিডি টাইমস :

মালয়েশিয়ায় সৃষ্ট সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে সরকারের পক্ষ থেকে সব ধরনের পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে উল্লেখ করে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নূরুল ইসলাম বিএসসি বলেছেন, মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশের আর কোনো কর্মীকে আটক করা হবে না।

মন্ত্রী বলেন, ডিসেম্বর পর্যন্ত মালয়েশিয়ায় অবৈধ শ্রমিকদের বৈধ হওয়ার সুযোগ রয়েছে।

রবিবার দুপুরে ইস্কাটনস্থ প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান ভবনের সম্মেলন কক্ষে রিপোর্টার্স ফর বাংলাদেশী মাইগ্রেশন (আরবিএম) আয়োজিত এক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

আরবিএম-এর সভাপতি ফিরোজ মান্নার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সেমিনারে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব জাবেদ আহমদ। বিএমইটির মহাপরিচালক সেলিম রেজা বিশেষ অতিথি হিসেবে সেমিনারে বক্তব্য রাখেন।

সংগঠনের সাধারণ সস্পাদক মাসুদুল হকের পরিচালনায় সেমিনারে লেবার মার্কেট সিচোয়েশন ইন মালয়েশিয়া এন্ড মিডলইস্ট কান্ট্রিজ : প্রেজেন্ট এন্ড ফিউচার চ্যালেঞ্জ শীর্ষক সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সংগঠনের সদস্য মহসীন উল করিম ।

মন্ত্রী ব্যক্তিগত সফরে মালয়েশিয়ায় অবস্থান করার কথা উল্লেখ করে বলেন, সেখানে বাংলাদেশ মিশনের কর্মকর্তাদের সাথে এ বিষয়ে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখছেন। মিশনের পক্ষ থেকে মালয়েশিয়ার সরকারের সাথে আলোচনা করে সমস্যা সমাধান করা হচ্ছে ।

গত দুই বছর দায়িত্ব পালন কালে জাপানসহ মধ্যপ্রাচ্যের বহু দেশে বাংলাদেশী কর্মী প্রেরণ করা হচ্ছে এবং আরো নতুন নতুন শ্রম বাজারে দ্বার খোলা হবে বলে তিনি সেমিনারে জানান।

জাবেদ আহমদ বলেন, মালয়েশিয়া সরকার সম্প্রতি বাংলাদেশের ২ লাখ ৫০ হাজার অবৈধ শ্রমিককে রিহায়ারিং কোটায় বৈধতা দিয়েছে। মালয়েশিয়া সরকার জি টু জি মাধ্যমে ২২ হাজার শ্রমিক নেয়ার চাহিদা পত্র দিয়েছে। এরমধ্যে প্রায় ৮ হাজার শ্রমিক মালয়েশিয়ায় গিয়েছে। জি টু জি মাধ্যমে বনায়ন ও কৃষি কাজের জন্য যারা বৈধভাবে যান তাদের কাছ থেকে সরকারিভাবে মাত্র ৩৫ হাজার টাকা নেয়া হয়ে থাকে বলে তিনি জানান।

সেলিম রেজা বলেন, মধ্যপ্রাচ্যের অনেক দেশে নারী কর্মীদের বিদেশ যেতে এখন কোন টাকা দিতে হয় না। ভবিষ্যতে পুরুষ কর্মীদেরও বিদেশে যেতে টাকা দিতে হবে না বলে তিনি উল্লেখ করেন।

 

ইউএস বিডি টাইমস /রহমান

Leave a comment

XHTML: You can use these html tags: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>