রাষ্ট্রপতি পদে হামিদের পক্ষে মনোনয়নপত্র নিয়েছে আ. লীগ

নিজস্ব প্রতিবেদক

ইউএস বিডি টাইমস :

রাষ্ট্রপতি পদে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন বর্তমান রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। শুক্রবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে আগারগাঁওস্থ নির্বাচন ভবনে ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদের কাছ থেকে তার পক্ষে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ।

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, দেশের ২১তম রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের জন্য নির্বাচন কর্তার কাছে মনোনয়নপত্র দাখিল ৫ ফেব্রুয়ারি সকাল ১০টা থেকে বিকেল চারটা পর্যন্ত।

মনোনয়নপত্র পরীক্ষা ৭ ফেব্রুয়ারি সকাল ১০টা থেকে শেষ না হওয়া পর্যন্ত, প্রত্যাহার ১০ ফেব্রুয়ারি বিকেল চারটা পর্যন্ত এবং সংসদ ভবনে ভোটগ্রহণ করা হবে ১৮ ফেব্রুয়ারি বিকেল দুইটা থেকে পাঁচটা পর্যন্ত।

এরআগে গত বুধবার (৩১ জানুয়ারি) গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে আওয়ামী লীগের সংসদীয় বোর্ডের সভায় আবদুল হামিদকে রাষ্ট্রপতি পদে মনোনয়ন দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়। পরে বৃহস্পতিবার (১ ফেব্রুয়ারি) রাতে বঙ্গভবনে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী ও ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদকে দেশের ২১তম রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে দলের মনোনয়ন প্রদানের সিদ্ধান্তের কথা আনুষ্ঠানিকভাবে জানিয়ে আসেন।

রাষ্ট্রপতির এক মুখপাত্র জানান, প্রধানমন্ত্রী বঙ্গভবনে সাক্ষাৎ করে রাষ্ট্রপতি পদে আবদুল হামিদকে মনোনয়ন দেয়ার আওয়ামী লীগের সিদ্ধান্ত সম্বলিত চিঠি আনুষ্ঠানিকভাবে হস্তান্তর করেন।

সংসদে আওয়ামী লীগের নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা থাকায় আবদুল হামিদের দ্বিতীয় মেয়াদে শপথ নেয়া এখন আনুষ্ঠানিকতা মাত্র।

বাংলাদেশের আইনে এক ব্যক্তি সর্বোচ্চ দুই মেয়াদে রাষ্ট্রপ্রধানের দায়িত্বে থাকতে পারেন। ফলে এবার নির্বাচিত হলে এটাই হবে আবদুল হামিদের শেষ মেয়াদ।

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের মৃত্যুর পর ২৪ মার্চ থেকে ভারপ্রাপ্ত রাষ্ট্রপ্রধান ছিলেন আবদুল হামিদ। পরে ২২ এপ্রিল তিনি বাংলাদেশের ২০তম রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হয়ে দায়িত্ব গ্রহণ করেন ২৪ এপ্রিল।

আগামী ২৩ এপ্রিল তার ৫ বছর মেয়াদ পূর্ণ হবে। আবদুল হামিদ রাষ্ট্রপতি হওয়ার আগে ৭ বার কিশোরগঞ্জ থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন এবং স্পিকার হিসেবে দু’বার দায়িত্ব পালন করেন।

রায়ের দিন কঠোর অবস্থানে থাকবে পুলিশ: আইজিপি
ঢাকা: বাংলাদেশ পুলিশের নবনিযুক্ত মহাপরিদর্শক (আইজিপি) জাবেদ পাটোয়ারী বলেছেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রায়কে কেন্দ্র করে কোনো ধরনের সহিংসতা রুখতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কঠোর অবস্থানে থাকবে।

তিনি বলেন, আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়ার রায়কে কেন্দ্র করে জনসাধারণের জানমাল রক্ষায় কঠোর অবস্থানে থাকবে পুলিশ। যেকোন ধরনের নাশকতা বা সহিংসতার চেষ্টা করা হলে তা রুখে দেয়া হবে।

বৃহস্পতিবার সকালে পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

নতুন আইজিপি বলেন, পুলিশের প্রধান দায়িত্ব জনগণের জানমালের নিরাপত্তা দেয়া। পুলিশ দৃঢ়তার সঙ্গে এ কাজ করে যাচ্ছে। আগামী দিনেও জনগণের জানমালের নিরাপত্তা দিতে প্রতিটি পুলিশ সদস্যই কঠোর অবস্থানে থাকবে।

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে আইজিপি বলেন, নির্বাচন পরিচালনা নির্বাচন কমিশনের দায়িত্ব। তবে জনগণের জানমালের নিরাপত্তায় সর্বোচ্চ দায়িত্ব পালন করবে পুলিশ। নির্বাচনের সময় অবস্থা বুঝে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পুলিশ সদস্যদের অপরাধে জড়িয়ে পড়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, পুলিশের কিছু সদস্যের অপকর্মের জন্য গোটা বাহিনী বিব্রত হয়। এর দায় কখনোই বাহিনী নেবে না। যারা এ ধরনের কাজ করে তাদের বিরুদ্ধে প্রচলিত আইন ও পুলিশি আইন কানুনে ব্যবস্থা নেয়া হয়।

 

ইউএস বিডি টাইমস /রহমান

Leave a comment

XHTML: You can use these html tags: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>