এরদোগানের প্রতিপক্ষ ধর্মনিরপেক্ষ নেতা মোহররেম ইনস

নিজস্ব প্রতিবেদক

ইউএস বিডি টাইমস :

তুরস্কের আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বর্তমান প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগানের বিরুদ্ধে লড়বেন সাবেক স্কুল শিক্ষক মোহররেম ইনস।

শুক্রবার ধর্মনিরপেক্ষ এই নেতাকে প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করেছে প্রধান বিরোধীদল (সিএইচপি)।

একটি জরিপে দেখা গেছে, আগামী ২৪ জুনের প্রেসিডেন্টসির জন্য ইনস এবং এরদোগানকে দ্বিতীয় রাউন্ডের ভোটে যেতে হতে পারে।

‘পার্লামেন্টারি ইমিউনিটি’ উঠিয়ে নিতে সংবিধানের সাম্প্রতিক সংশোধনের বিরুদ্ধে সরব ভূমিকার জন্য ব্যাপক পরিচিতি পান গ্রামীণ পটভূমি থেকে আসা ইনস। এই সংশোধনের মাধ্যমে কুর্দিপন্থী এইচডিপি’র কয়েকজন আইনপ্রণেতাকে কারাদণ্ড দেয়।

এরদোগানের কঠোর সমালোচক ইনস ২০০২ সাল থেকে সিএইচপি দলের হয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে আসছেন। এর আগে তিনি হাই স্কুল পদার্থবিজ্ঞানের শিক্ষক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

আঙ্কারায় একটি সমাবেশে সমর্থকদের উদ্দেশ্যে ইনস বলেন, ‘আমি সকল জনগণের প্রেসিডেন্ট হব এবং আমার ভূমিকা হবে নির্দলীয়। ২৪ জুনের মধ্যে আমাদের বিষন্নতার অবসান হবে।’

ওই সমাবেশে সিএইচপি প্রধান কেমাল কিলিসডারোগ্লু ইসনকে দলীয় প্রার্থী হিসেবে পরিচয় করিয়ে দেন।

২০১৪ ও ২০১৮ সালের দলীয় নির্বাচনে একমাত্র চ্যালেঞ্জার হিসেবে তিনি নির্বাচন করেছিলেন, কিন্তু উভয়ই প্রচেষ্টাতেই ব্যর্থ হয়েছিলেন।

ব্রাউন বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়াটসন ইন্সটিটিউটের তুর্কি রাজনীতিবিদ গবেষক সেলিম সাজাক বলেন, ইনস ছিলেন কেন্দ্রীয় ও প্রগতিশীলদের মধ্যে একটি আপোষকামী প্রার্থী।

তিনি আরব নিউজকে বলেন, ‘সবচেয়ে তাত্ক্ষণিক অর্থ হল সিএইচপি তার ভিত্তিকে নিরাপদ রেখে খেলছে।’

সজাক ইনসকে একজন ‘ধর্মনিরপেক্ষ ফায়ার ব্রান্ড’ হিসাবে বর্ণনা করে বলেন, তিনি একজন প্রতিভাধর বক্তা এবং একজন সত্যিকারের দলীয় লোক। গ্রামীণ পটভূমি থেকে আসা ইনস তার শিকড়কে খুব ভালভাবে জানেন।’

তিনি বলেন, রক্ষণশীল ভোটারদের আকৃষ্ট করাই হবে ইসনের জন্য সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ এবং এটা নির্বাচনে তার জয়ের জন্য একটি পূর্বশর্ত।

ইনসের একমাত্র কঙ্কালটি হচ্ছে রমজান মাসে মদ পান করার একটি ফটোগ্রাফ; যা রক্ষণশীল ভোটাররা তার দিকে থেকে মুখ ফিরিয়ে নিতে পারে।

ইসলামপন্থী ভোটারদের আকৃষ্ট করার জন্য মনোনয়ন পাওয়ার কিছু পরেই আঙ্কারার ‘হেসি বায়রাম’ মসজিদে শুক্রবারের জুমার নামাজ পড়ার মাধ্যমে ইনস তার নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেন।

সূত্র: আরব নিউজ

ইউএস বিডি টাইমস /রহমান

Leave a comment

XHTML: You can use these html tags: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>